View Question 4303 views

Subject : কিশোরীমোহন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রসঙ্গে!

Avatar

Written By : Dipangkar Das Dipon

মাননীয় এমপি মহোদয়, প্রথমেই আমার শুভেচ্ছা নিবেন।আমি সিলেটের সুবহানীঘাট এলাকার একজন ভোটার। সিলেট বিভাগে একজন নারী এমপি হিসেবে আমরা আপনার পারফরমেন্সে খুবই খুশী। আপনি নিশ্চয়ই অবগত আছেন যে, সিলেট নগরীর কিশোরীমোহন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করে কিশোরীমোহন (বালক) প্রাথমিক বিদ্যালয় করা হয়েছে। এই স্কুলে মেয়ে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার সুযোগ বন্ধ করে দেওয়ার কারণে লিঙ্গ-বৈষম্যের সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে হয়, এবং একই সঙ্গে মেয়ে শিক্ষার্থীদের দুরের স্কুলে ঠেলে দেওয়াও হয়েছে, যা স্থানীয়দের জন্য অনেক ব্যয়সাধ্য ব্যাপার। এই অবস্থায় নগরীর মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তদের মেয়ে সন্তানদের লেখাপড়ার সুযোগ করে দিতে এই স্কুলকে আগের অবস্থায় নিয়ে আসার কোন উদ্যোগ মাননীয় এমপি মহোদয় নেবেন কি? বিনীত, দিপঙ্কর দাস দিপন, সুবহানীঘাট, সিলেট

Avatar

Written By : Amatul Kibria Keya -আমাতুল কিবরিয়া কেয়া

Public

amarmp.com -এর মাধ্যমে আমাকে সিলেট মহানগরীর সোবহানীঘাট এলাকার একজন বাসিন্দা 'কিশোরীমোহন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়' -এর নাম পরিবর্তন বিষয়ে একটি প্রশ্ন করেছেন। এ প্রসঙ্গে আমার বক্তব্য নিম্নরূপ - "আমি প্রথমেই প্রশ্নকর্তা জনাব দিপঙ্কর দাস দিপনকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই, একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে বিষয়টি নিয়ে উনার সৃষ্টিশীল ভাবনার জন্য। সেই সাথে উত্তর দিতে অনিচ্ছাকৃতভাবে দেরী হওয়ায় দুঃখপ্রকাশ করছি। ঐতিহ্যবাহী কিশোরীমোহন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টির নাম পরিবর্তন আসলেই কাম্য নয় এবং স্বাভাবিক দৃষ্টিতে এটা লিঙ্গ বৈষম্যের সৃষ্টি করতে পারে বলে আমি মনে করি। তবে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম পরিবর্তনের বিষয়টি পুরোপুরিভাবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে। আমি আপনাদের প্রতিনিধি হয়ে বিষয়টি জাতীয় সংসদে উত্থাপন করব, এবং আমাদের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী জনাব নুরুল ইসলাম নাহিদের দৃষ্টি আকর্ষণ করব মহান জাতীয় সংসদের মাধ্যমে। আমি আশাবাদী যে, আমার এ প্রচেষ্টা ফলপ্রসূ হবে। পরিশেষে amarmp.com -কে জনগণের অধিকার ও জনপ্রতিনিধিদের জবাবদিহিতার মাধ্যমে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় প্রচেষ্টার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।" https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=746922042132484&id=312337622257597