View Question 146 views

Subject : গোপন ক্যামেরায় ধরা পড়লো এক অধ্যক্ষের প্রায় অর্ধ কোটি টাকার ঘুষ লেনদেন!

Avatar

Written By : AmarMP Admin

মাননীয় এমপি মহোদয়

সালাম নিবেন। 

রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার বখতিয়ারপুর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মজিবর রহমান।
সম্প্রতি ওই কলেজে ৮ জন শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। নিয়োগের সময় প্রত্যেক শিক্ষক প্রার্থীর কাছ থেকে নিয়েছেন ৭ থেকে ১০ লাখ টাকা।
একজন প্রার্থী কিছু টাকা কম দিতে চাইলে তিনি মাথা নেড়ে বলেন আমি ৭ লাখ টাকার কমে ঘুষ খাইনা।
শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে তিনি কৌশলে অবসর নিয়েছেন।
আমারএমপি'র গোপন ক্যামেরায় দেখা যাচ্ছে ঘুষের টাকা নিজ হাতে গুনে নিচ্ছেন অধ্যক্ষ মজিবর রহমান।
দৃশ্যটি ধরা পড়ে গত ডিসেম্বরে, আমারএমপি স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংস্থার এক ভোলানটিয়ারের গোপন ক্যামেরায়।
 
বিষয়টি তদন্ত করে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার  অনুরোধ  করছি।
 
বিনীত
 
আমার এমপি টিম 

Avatar

Written By : AmarMP Admin

Public

শুভেচ্ছা রইলো আমার টিমের প্রতি!
 
রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার বখতিয়ার ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মজিবর রহমানের ঘুষ বানিজ্যের বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে আমার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে।  বিষয়টি আমার দৃষ্টি আকর্ষণ করায় আমি সংশ্লিষ্ট কলেজ পরিচালনা কমিটি ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষর সাহেবের সাথে কথা বলেছি। ঘুষ বানিজ্যের এ ঘটনাটি ঘটেছে গত ৩০ ডিসেম্বরের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে। এই আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এই ঘুষ বানিজ্যের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন বলে আমাকে জানানো হয়েছে। কিন্তু ভবিষ্যতে ওই কলেজে এ ধরনের কোন বানিজ্যের সুযোগ নেই। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলকে সতর্ক করা হয়েছে। 
 
শুভেচ্ছান্তে,
 
প্রফেসর ডাঃ মোঃ মনসুর রহমান
মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য ৫৬
রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর)
সদস্য- স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।