View Question 2064 views

Subject : গৌরীপুর থানায় নারী কনস্টেবলের আত্মহত্যায় দায়ী ধর্ষক এবং ওসির বিরুদ্ধে আপনার গৃহীত ব্যবস্থা জানতে চাই ।

Avatar

Written By : Maruf Haider

মাননীয় এমপি মহোদয় ,

শ্রদ্ধা জানবেন  । আপন্নি , আমরা এবং সারা দেশবাসী সকলেই অবগত আছি  যে গত ২ এপ্রিল গৌরীপুর থানার ব্যারাকে নিজ শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করেছে একজন নারী কনস্টেবল , "হালিমা আক্তার" । তার কারন আপনার থানায় তৎকালীন সময়ে কর্মরত এস আই মিজান  । আজকের বেশ কয়েকটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত সংবাদ থেকে আমরা জানতে পারি হালিমা আক্তারের ডায়েরিতে লিখে যাওয়া দু'লাইন ।

‘আমার মরে যাওয়ার একমাত্র কারণ এসআই মোহাম্মদ মিজানুল ইসলাম আমাকে ধর্ষণ করেন। ১৭/০৩/১৭ ইং রাত ২.০০ ঘটিকায়। আমার অভিযোগ অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গ্রহণ করেন না।’

এখানে যদি হালিমার নোট  সত্য হয় যে ওসি সাহেব অভিযোগ গ্রহণ করেননি তাহলে আমার মতে ওসি সাহেবই কি সরাসরি দায়ী নন এই অপমৃত্যুর জন্য ? ধর্ষণের পরও আমাদের হালিমা বাচতে চেয়েছিল , বিচার চেয়েছিল । কিন্তু কেবল ওসি সাহেবের সদিচ্ছার কারণেই তা সম্ভব হয়নি বলে মেয়েটিকে বাঁচার জন্য মরতে হয়েছে ।  বর্তমান বাংলাদেশের চরম প্রতিক্রিয়াশীল সময়েও যে আমাদের মেয়েরা পুলিশে যোগ দিচ্ছে এটাই আমাদের জাতি এবং রাস্ট্রের জন্য অনেক বড় পাওয়া , তারপরও এমন যদি হয় তাহলে আমাদের নারীসমাজ অনগ্রসরই থেকে যাবে ।  হতে পারে হালিমা আপনার সঙ্গসদীয় এলাকার ভোটার না ,  কিন্ত এই অমানবিকতাটি ঘটেছে আপনার আসনে, আপনার থানায় । মাননীয় এমপি মহোদয় ,  এ বিষয়ে দ্রুত আপনার কার্যকরী কোন পদক্ষেপ আমরা দেখতে পাবো কি   ??

 আপনার সুস্থতা এবং দীর্ঘায়ু কামনা করছি । 

Avatar

Written By : Nazim Uddin Ahmed -নাজিম উদ্দিন আহমেদ

Public Featured

নারী কনস্টেবল হালিমা আক্তারের ধর্ষনের ঘটনায় দোষীদের বিচারের দাবিতে আমার এমপি ডটকমের পক্ষ থেকে ময়মনসিংহ-৩ আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন আহমেদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে আমিও দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই বলে মন্তব্য করেছেন।

সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন বলেন, কনস্টেবল হালিমা আক্তার একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। তার বাবার ন্যায় আমিও অত্যন্ত শোকাহত। আমিও দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই। নিজ প্যাডে স্বাক্ষরিত এক প্রশ্নের উত্তরে এই সংসদ সদস্য বলেন, বাংলাদেশের প্রচলিত আইন এবং পুলিশ এ্যাক্ট অনুযায়ী মামলার তদন্ত চলছে। মামলাটি ময়মনসিংহ ডিবি পুলিশের তদান্তধীন। পোস্ট মর্টেম রিপোর্ট এবং ভিসেরা রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন প্রকাশ করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।

আমার এমপি ডটকম ব্যবহার করে ওই এলাকার মারুফ হায়দার নামে এক নাগরিক সংসদের কাছে প্রশ্ন রেখে বলেন, গৌরীপুর থানায় নারী কনস্টেবল আত্মহত্যায় দায়ী ধর্ষক এবং ওসির বিরুদ্ধে আপনার গৃহীত ব্যবস্থা জানতে চাই। এর জবাবে মারুফকে ধন্যবাদ জানিয়ে এই সংসদ সদস্য নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেন।