View Question 924 views

Subject : লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতিতে সমুদ্র বন্দর চাই

Avatar

Written By : Faisal Hassan

যেকোন দেশের অর্থনীতি ও বাণিজ্যিক কর্মকান্ডের চাকাকে সচল রাখতে সমুদ্র বন্দরের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সমুদ্র বন্দরের ভৌগোলিক অবস্থান একটি দেশের অর্থনীতিকে সমৃদ্ধির স্বর্ণশিখরে পৌঁছাতে তার চেয়ে অধিক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আমাদের প্রয়োজন এমন একটি সমুদ্র বন্দর যেখান থেকে রাজধানী ঢাকা ও দেশের অন্যান্য অঞ্চলে দ্রুত ও সহজে পণ্য পরিবহন তথা আমদানী-রপ্তানীর ব্যবস্থা নিশ্চিত করা যায়। এসব বিবেচনা মাথায় রেখে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার আলেকজান্ডারে সমুদ্র বন্দর নির্মাণ করা হলে এটি হবে দেশের প্রাণকেন্দ্র তথা রাজধানী ঢাকা থেকে সবচেয়ে নিকটতম সমুদ্র বন্দর। লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ-হাজীগঞ্জ-কচুয়া-গৌরীপুর (দাউদকান্দি) জাতীয় মহাসড়ক বাস্তবায়ন করা হলে রাজধানী ঢাকা হতে লক্ষ্মীপুরের দূরত্ব দাঁড়াবে মাত্র ১১৮ কিলোমিটারে এবং বর্তমানে লক্ষ্মীপুর হতে রামগতির আলেকজান্ডারের দূরত্ব মাত্র ৩৯ কিলোমিটার। সর্বোপরি প্রস্তাবিত রামগতি সমুদ্র বন্দরটি বাস্তবায়িত হলে রাজধানী ঢাকা হতে এর দূরত্ব দাঁড়াবে মাত্র ১৫৭ কিলোমিটারে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সমুদ্র বন্দরসমূহের ভৌগোলিক অবস্থান লক্ষ্য করলে আমরা দেখতে পাই যে, বেশীর ভাগ সমুদ্র বন্দরই নির্মিত হয়েছে নদী ও সমুদ্রের মিলনস্থলে তথা মোহনায়। আমাদের দেশের বৃহত্তম সমুদ্র বন্দর চট্টগ্রামও নির্মিত হয়েছে কর্ণফুলী নদীর মোহনায়। লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার আলেকজান্ডার এমন একটি স্থান যেখানে মেঘনা নদী সমুদ্রে গিয়ে মিশেছে অর্থাৎ এটি মেঘনা নদীর মোহনায় অবস্থিত যা কিনা সমুদ্র বন্দর নির্মাণের জন্য আদর্শ স্থান। তদুপরি এটি এমন একটি স্থান যা দেশের উপকূলীয় অঞ্চলের মধ্যভাগে অবস্থিত, ফলে এখান থেকে দেশের যেকোন স্থানে পণ্য পরিবহন সহজ ও সাশ্রয়ী হবে। লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি ও কমলনগর উপজেলা অত্যন্ত দরিদ্রপ্রবণ এলাকা এবং অধিকাংশ মানুষই মৎস্যজীবী যারা মৎস্য আহরণ করে জীবিকা নির্বাহ করে। অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় এই যে, বৃহত্তর নোয়াখালী অঞ্চলে বিশেষ করে লক্ষ্মীপুর জেলায় স্বাধীনতার ৪০ বছর অতিক্রান্ত হলেও কোন শিল্প-কলকারখানা স্থাপিত হয়নি। লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার আলেকজান্ডারে সমুদ্র বন্দর নির্মাণ করা হলে লক্ষ্মীপুর জেলাসহ বৃহত্তর নোয়াখালী, কুমিল্লা ও বরিশালসহ দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে গতির সঞ্চার হবে। এ অঞ্চলে স্থাপিত হবে নতুন নতুন শিল্প-কলকারখানা, ফলে দ্বার উন্মোচিত হবে নতুন নতুন কর্মসংস্থানের। ফলশ্রুতিতে দূর হবে আঞ্চলিক বৈষম্য ও খুলে যাবে সুষম উন্নয়নের দুয়ার যা বর্তমান সরকারের অন্যতম একটি নির্বাচনী ম্যান্ডেট। অতএব, লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার আলেকজান্ডারে প্রস্তাবিত সমুদ্র বন্দর নির্মাণের জন্য মাননীয় নৌপরিবহন মন্ত্রীসহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। একই সাথে অনতিবিলম্বে লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ-হাজীগঞ্জ-কচুয়া-গৌরীপুর (দাউদকান্দি) রুটে জাতীয় মহাসড়ক বাস্তবায়নের জন্য মাননীয় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।